সঞ্জয় আচার্যের কবিতা

নস্টালজিয়া ১
সঞ্জয় আচার্য

ফাগুন গেছে চলে দোরে চৈত্র নাড়ে কড়া,
শিমুল ঝরে পথে, এখন আসেনা ডাকহরকরা।
ভাঁটি ফুলে আসত যখন প্রফুল্ল যৌবন,
গ্রাম্যপ্রেমে ভরে যেত মনের মৌবন।
নোট খাতাটার এক কোণেতে অস্ফুট সব কথা
দাবদাহের মত—তোমার মাথায় হত ব্যথা।
রবির গানে ভরতে হৃদয় পলাশ তখন লাল,
বকুল খোঁপায় অপ্সরীরাও মহুল উন্মাতাল।
মন্দিরের সিঁড়ির পাশে এলানো কাঞ্চনে,
প্রজাপতি ঘুমিয়ে যেত ঝিঁঝিঁ পোকার গানে।
বেদন হয়ে বেরিয়ে আসে কিছু ভাললাগা,
ফাটা মাঠে মই দিয়ে যায় মিষ্টি কুমোড় ডগা।
কত বছর পেরিয়ে গেছে সেসব দিনের পরে,
ভালবাসা ঠিকই আছে অন্তরে অন্তরে।
বরাক যেমন ডাল দিয়েছে সুরমা কুশিয়ারা,
খরস্রোতা দু’জন আছি একটু ছন্দহারা।