মুস্তাফিজ-নেহরায় চুরমার মুম্বাই

MST
ডেস্ক : আইপিএলে মুস্তাফিজ-ঝলক চলছেই। তরুণ এই পেসারের সঙ্গে জ্বলে উঠলেন অভিজ্ঞ আশিস নেহরাও। আর তাতে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সামনে দাঁড়াতেই পারল না মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

রোববার মুম্বাইকে ৮৫ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়েছে হায়দরাবাদ। আগে ব্যাট করে ৩ উইকেটে ১৭৭ রান তুলেছিল তারা। জবাবে ১৬.৩ ওভারে মাত্র ৯২ রানেই গুটিয়ে যায় মুম্বাইয়ের ইনিংস।

এই জয়ে আপাতত পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে উঠে গেছে হায়দরাবাদ। ৯ ম্যাচে ৬টিতে জিতে তাদের সংগ্রহ ১২ পয়েন্ট। আর মুম্বাই ১০ ম্যাচের ৫টিতেই হারল।

বিশাখাপত্তনমের রাজশেখর রেড্ডি ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ১৭৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে হায়দরাবাদের পেসারদের সামনে দাঁড়াতেই পারেননি মুম্বাইয়ের ব্যাটসম্যানরা। পাওয়ার-প্লেতেই ৩০ রানের মধ্যেই ওপরের দিকের ৫ ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে মহাবিপদে পড়ে তারা।

পার্থিক প্যাটেল, রোহিত শর্মা, আম্বাই রাইডু, ক্রুনাল পান্ডিয়া ও জস বাটলারের মধ্যে দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন কেবল পান্ডিয়া (১৭)। দলীয় ৪৯ রানে ফিরে যান কাইরন পোলার্ডও (১১)।

পাওয়ার-প্লেতে এদিন মুস্তাফিজের হাতে বল দেননি হায়দরাবাদ অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার। তবে দশম ওভারে প্রথমবারের মতো বোলিংয়ে এসে প্রথম বলেই উইকেট নেন কাটার মাস্টার। মুস্তাফিজের স্লোয়ার হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাটের কানা ছুঁয়ে চলে যায় উইকেটরক্ষক নামান ওঝার হাতে।

নিজের পরের ওভারে এসেও আবার প্রথম বলেই উইকেট নেন মুস্তাফিজ। এটা যেন আগের উইকেটেরই রিপ্লে! স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হয়ে ওঝার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন টিম সাউদি।

নিজের তৃতীয় ওভারের প্রথম বলে চার খেলেও শেষ বলে ঠিকই উইকেট তুলে নেন মুস্তাফিজ। অফ কাটার উড়িয়ে মারতে গিয়ে মিড উইকেটে হেনরিকসের হাতে ধরা পড়েন মিচেল ম্যাক্লেনাঘান।

এরপর অবশ্য মুস্তাফিজকে আর বল দেননি ওয়ার্নার। বুমরাহকে ফিরিয়ে মুম্বাইয়ের ইনিংস গুটিয়ে দেন স্রান।

৩ ওভারে ১৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন নেহরা। ৩ ওভারে নেহরার চেয়ে ১ রান বেশি দিয়ে ৩ উইকেট নেন মুস্তাফিজ।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নামে হায়দরাবাদ। উদ্বোধনী জুটিতে দলকে দুর্দান্ত সূচনা এনে দেন ডেভিড ওয়ার্নার ও শিখর ধাওয়ান। ৯.৫ ওভারে ৮৫ রান যোগ করেন দুজন। ওয়ার্নারের বিদায়ে ভাঙে উদ্বোধনী জুটি। ৩৩ বলে ৭ চার ও এক ছক্কায় ৪৮ রান করেন হায়দরাবাদ অধিনায়ক।

তিনে নামা কেন উইলিয়ামসন এদিন ভালো করতে পারেননি। ২ রান করেই বিদায় নেন কিউই অধিনায়ক। তবে আগের ম্যাচে এবারের আইপিএলে প্রথমবারের মতো খেলতে নেমে ১৪ বলে ৫ রান করা যুবরাজ সিং এদিন ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন। তৃতীয় উইকেটে ধাওয়ানের সঙ্গে ৮৫ রানের জুটি গড়ে ফেরার আগে ২৩ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৩৯ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলেন এই বাঁহাতি।

আর ধাওয়ানের অপরাজিত ৮২ রানের সুবাদে ১৭৭ রানের পুঁজি গড়ে হায়দরাবাদ। ধাওয়ানের ৫৭ বলের ইনিংসে ছিল ১০টি চার ও একটি ছক্কার মার।

এবারের আসরে দুই দলের প্রথম দেখায়ও মুম্বাইকে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল হায়দরাবাদ।