পানি আনতে গিয়ে আর ফিরে আসেনি তারা

ডেস্ক: ভারতের অনেক স্থানেই চলছে প্রচণ্ডদাবদাহ। সে সঙ্গে খরা। পানি সংকটে পড়েছেন দেশটির মানুষ। বিভিন্ন স্থানে সরকারের পক্ষ থেকে পানির ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে দীর্ঘ সময় লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও প্রয়োজনীয় পানি সংগ্রহ করতে পারছেনা তারা। আর পানি সংগ্রহ করতে গিয়ে অনেকেই আর ফিরে আসেনি।

গতকাল মঙ্গলবার তেমনই একটি লাইনে পানির জন্য দাঁড়িয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের অতোলা গ্রামের ৪৫ বছর বয়সী নারী কেভালবাঈ কাম্বলে। মাথার ওপর প্রচন্ড সূর্যের তাপ আর প্রয়োজনীয় পরিমাণ পানি পান না করা শরীর নিয়ে দীর্ঘ সময় অপেক্ষা। হঠাৎ করেই পড়ে যান কেভালবাঈ। দ্রুত তাঁকে স্থানীয় সরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা কেভালবাঈকে মৃত ঘোষণা করেন।

গণমাধ্যমের খবরে জানানো হয়, গত সপ্তাহেও প্রায় একই ধরনের ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রের বিদ জেলায়। সেখানে ১১ বছর বয়সী এক কিশোর তার পরিবারের জন্য পানি সংগ্রহ করতে গিয়ে কুয়ায় পড়ে মারা যায়। একই জেলায় আরেক গ্রামে পানির পাম্প থেকে পরিবারের জন্য পানি সংগ্রহ করছিল ১২ বছরের কিশোরী যোগিতা। সে সময় ডায়রিয়ার কারণে শরীর দুর্বল থাকলেও বাধ্য হয়ে তাকে পানি আনতে হয়েছিল। প্রায় শুকিয়ে যাওয়া পানির কল চেপে পাঁচ দফায় পানি সংগ্রহ করার পর ৪২ ডিগ্রি তাপমাত্রায় প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ’ হয়ে মারা যায় সে।