ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’র প্রভাবে বিয়ানীবাজারে বৃষ্টি

megজুনেদ ইকবাল : ঘূর্ণিঝড় ‘রোয়ানু’ ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের উপকূল থেকে কিছুটা উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে সরে এসে সাগরের পশ্চিমমধ্য ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। এর প্রভাবে বিয়ানীবাজারসহ সারাদেশে বৃষ্টি হচ্ছে।

 

রাত থেকে বিয়ানীবাজারসহ আশপাশের এলাকায় মুশলধারে বৃষ্টি হচ্ছে।এ বৃষ্টিতে জনজীবনে নেমে এসেছে দুর্ভোগ বিষেশ করে স্কুল কলেজগামী ছাত্র-ছাত্রীসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষকে দুর্ভোগ পুহাতে হচ্ছে।

 

সিলেটের আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী বিয়িানীবাজারকণ্ঠকে জানান, ‘রোয়ানু’র প্রভাবে সিলেটে শুধুমাত্র বৃষ্টি হবে। এছাড়া বড় কোনকিছুর আশংকা নেই।

উল্লেখ্য,সকল সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। তবে আতঙ্কিত হওয়ার মতো অবস্থায় নেই ঘূর্ণিঝড়টি । এদিকে ঘূর্ণিঝড়ের কারণে চট্টগ্রাম বন্দরের বর্হিনোঙ্গরে অবস্থানরত মাদার ভেসেল থেকে পণ্য খালাস বন্ধ রয়েছে।

এদিকে ,ঘুর্ণিঝড় ‘রোয়ানুর’ প্রভাবে ভোলার তজুমদ্দিন ও পটুয়াখালী দশমিনায় ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এসব ঘটনায় আহত হয়েছেন শতাধিক ।

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু উপকূল অতিক্রম করার আগেই উপকূলীয় বিভিন্ন জেলায় কয়েকশ ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

বাংলদেশ রেড ক্রিসেন্টের সাইক্লোন প্রিপার্ডনেস প্রোগ্রামের উপ পরিচালক মো. শাহাবুদ্দবীন গণমাধ্যমকে জানান, শুক্রবার শেষরাতের দিকে ভোলায় প্রবল ঝড়ো হাওয়া শুরু হলে তজুমদ্দিনে ঘর ও গাছ চাপা পড়ে দু’জনের মৃত্যু নিহতরা হলেন- তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের শশিগঞ্জ গ্রামের নয়নের স্ত্রী রেখা বেগম (৩৫) ও একই এলাকার মো. মফিজের ছেলে আকরাম (১৪)।

শাহাবুদ্দবীন বলেন, ভোর ৪টার দিকে ঝড়ের তীব্রতা বেড়ে গেলে ঘর চাপা পড়ে আকরাম আহত হন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সকাল ৬টায় তার মৃত্যু হয়। এছাড়া ঝড়ে গাছ ভেঙে ঘরের ওপর পড়লে মারা যান রেখা বেগম।

স্থানীয়রা বলছেন, ঝড়ে তজুমদ্দিনের শশীগঞ্জ বাজারের তিন শতাধিক ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান বিধ্বস্ত হয়ে কয়েক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

এদিকে সকালে প্রবল ঝড়ো হাওয়ার মধ্যে ঘর ভেঙে পড়লে পটুয়াখালী দশমিনা উপজেলার সদর ইউনিয়ন লক্ষ্মীপুর গ্রামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।

দশমিনার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজহারুল ইসলাম জানান, নিহত ওই নারীর নাম নয়া বিবি(৫২) । ঝড়ে ওই এলাকার আরো ১০/১২টি ঘর ধসে পড়েছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান।

ঘূর্ণিঝড় রোয়ানু উপকূলের দিকে এগিয়ে আসায় রাজধানী ঢাকা এবং দেশের দক্ষিণাঞ্চলের সব জেলাতেই বৃষ্টি হচ্ছে।

আবহাওয়া অধিদপ্তর বলেছে, সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে কোনো এক সময় বরিশাল-চট্টগ্রাম উপকূল অতিক্রম করতে পারে এই ঘূর্ণিঝড়।