সঞ্জয় আচার্যের কবিতা : আগমনী ১০

আগমনী ১০

সঞ্জয় আচার্য

আমার কথাকলিরা সুখে আছে
ওরা অকারণে সুখ নেয়
ওরা বিনা বাক্যে সুখ খুঁজে

ওরা ভাবে ওদের জন্যই বা বুঝি সব শব্দ গাঁথুনি
আশি গ্রাম কাগজের বুকে লিখে যাই।

মুর্খরা চোখ মেলে দ্যাখ আমার কবিতা মালতীর জন্য
দৃষ্টিপ্রদীপ হয়ে জ্বলে বিভূতির উপন্যাস সমগ্রে।

একবার কান খাড়া করে শোন অশ্বত্থ বটের সেই বৈষ্ণবীর গান
ঘুম হয়ে ধরা দেয় অকালবোধনে।
তোরা নিমাই সন্ন্যাস শুনিস নি? শ্রীরাধার দানলীলা?
উপুর্যপুরি ছুরি চালনোর অঙ্কে হারা-জেতার অসামান্য ভণিতা
নে খুঁজে শরতের নীলে।

জীবনের রঞ্জক আজ বাগানের দইগোটা, মনোরঞ্জক প্রেমের মূর্ছনা
মাঝখানে অনেকটা ফাঁকা জায়গা ভরে গেছে বিষাক্ত জ্বলে

সন্ধ্যা নামে ধোঁয়া ওঠা কফির কাপে
জল পড়ছে না টুপটাপ বৃষ্টিশেষে।