বিয়ানীবাজারে প্রধান শিক্ষকের বদলীর দাবিতে ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের ক্লাসবর্জন অব্যাহত

স্টাফ রিপোর্টার ::

বিয়ানীবাজারে প্রধান শিক্ষকের বদলীর দাবীতে ক্লাসবর্জন অব্যাহত রেখেছে ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা। ওই বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কেউই গত দু’দিন থেকে বিদ্যালয়ে উপস্থিত হয়নি। তাদের একদফা দাবী, প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিনকে প্রত্যাহার করতে হবে। যতদিন তাঁকে বদলী করা হয়নি ততদিন তারা বিদ্যালয় বর্জন করবে। বিদ্যালয়ে চলমান এ অবস্থা সম্পর্কে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবহিত করা হয়েছে।
জানা যায়, উপজেলার কুড়ার বাজার ইউনিয়নের শাহজালাল বাজার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিনকে বদলী করার জন্য গত ১৩ এপ্রিল এলাকাবাসী, ব্যবস্থাপনা কমিটি ও শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কাছে লিখিত আবেদন জানানো হয়। আবেদনে প্রধান শিক্ষকের শালীনতা বিবর্জিত ও অনৈতিক কর্মকান্ড, ক্লাশরুমে উচ্চস্বরে গানবাজনা এবং ধুমপানের অভিযোগ উপস্থাপন করা হয়। এসব অভিযোগ তদন্তে গিয়ে সত্যতা পাওয়া যায় বলে জানান উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো: মাছুম মিয়া। তিনি বলেন, প্রধান শিক্ষককে বদলীর জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তাকে এর আগেও চারখাই এবং মাথিউরার একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে এলাকাবাসীর আন্দোলনের মুখে প্রত্যাহার করে নেয়া হয় বলে জানান তিনি।
বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নুরুল হোসেন লস্কর জানান, দু’বছর থেকে কমিটির সদস্যদের সাথে তার কোন সম্পর্ক নেই। তিনি স্বাক্ষর জাল করে বেতন-ভাতা উত্তোলন করেন। ওই শিক্ষকের অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ এবং তাকে বদলীর দাবীতে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের বিদ্যালয়ে পাঠাচ্ছেন না বলে উল্লেখ করেন তিনি।
এদিকে প্রধান শিক্ষক কফিল উদ্দিন জানান, বিদ্যালয়ের বেশকিছু জমি বেদখল হয়ে যাওয়ায় আমি ইউএনও’র কাছে লিখিতভাবে জানিয়েছি। এ কারণে আমার বিরুদ্ধে এমন ষড়যন্ত্র চলছে।