দুই দিনে আপন জুয়লার্সের ১৩ মণ স্বর্ণ জব্দ

বিয়ানীবাজারকণ্ঠ.কম ::

দুই দিনে আপন জুয়েলার্সে অভিযান চালিয়ে শুল্ক গোয়েন্দা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা প্রায় ১২ মণ ৩৫ কেজি স্বর্ণ জব্দ করেছেন। এরমধ্যে গতকাল রবিরার আপন জুয়েলার্সের পাঁচটি শাখার চারটি থেকে ২৮৬ কেজি স্বর্ণালঙ্কার এবং ৬১ গ্রাম হীরা জব্দ করা হয়। আজ সোমবার গুলশানে আপন জুয়েলার্সের প্রধান শাখায় অভিযান চালিয়ে ২১২ কেজি স্বর্ণ জব্দ করা হয়।

রাজধানীর বনানীতে দুই তরুণী ধর্ষণের ঘটনার পর আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদের অবৈধ সম্পদের খোঁজে মাঠে নেমেছে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা। এ ছাড়া শাফাত, দিলদার আহমেদ ও আপন জুয়েলার্সের নামে থাকা ব্যাংক হিসাবের তথ্য চেয়ে সব ব্যাংকে গতকাল চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এরই অংশ হিসেবে সোমবার বেলা তিনটার দিকে গুলশান ২ নম্বরের সুবাস্তু ইমাম টাওয়ারে অবস্থিত আপন জুয়েলার্সের শাখায় অভিযান শুরু হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের উপপরিচালক সাইফুর রহমান। অভিযান চালিয়ে এই শাখা থেকে ২১২ কেজি স্বর্ণ জব্দ করা হয়।

এর আগে গতকাল রবিবার আপন জুয়েলার্সের মৌচাক, উত্তরা, জিগাতলার সীমান্ত স্কয়ার এবং গুলশানের দুটি বিক্রয় কেন্দ্রে একযোগে অভিযান শুরু হয়। রাতে অভিযান শেষে পাঁচটি শোরুম সিলগালা করে দেয় শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতর। পাঁচটি শাখার চারটি থেকে ২৮৬ কেজি স্বর্ণালঙ্কার এবং ৬১ গ্রাম হীরা জব্দ করা করা হয়।

রবিবারের অভিযানে আপন জুয়েলার্স মৌচাক মার্কেট শাখায় সাড়ে ৫৩ কেজি স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া যায়। যার বাজার মূল্য ১৯ কোটি ১১ লাখ ৯০ হাজার টাকা। এ শাখায় ডায়মন্ডের অলঙ্কার পাওয়া যায় ১৭.৩৫ গ্রাম। যার বাজার মূল্য আনুমানিক দুই কোটি ৩৭ লাখ টাকা। সীমান্ত শাখায় ৮১ কেজি ৬৮৮ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া যায়। যার বাজার মূল্য ৩২ কোটি ১৪ লাখ টাকা। এ শাখায় ডায়মন্ডের অলঙ্কার পাওয়া গেছে ৩৩.৪৪ গ্রাম। যার বাজার মূল্য এক কোটি ৩৩ লাখ টাকা। উত্তরা শাখা থেকে আটক করা হয় ৮২ কেজি স্বর্ণালঙ্কার, যার বাজার মূল্য ৩২ কোটি ২৪ লাখ টাকা। এ শাখায় ডায়মন্ডের অলঙ্কার পাওয়া যায় ৯.৭ গ্রাম, যার বাজার মূল্য এক কোটি ৩৩ লাখ টাকা। ডিসিসি মার্কেট শাখায় ৬৮ কেজি ৪৬২ গ্রাম স্বর্ণালঙ্কার পাওয়া যায়, যার বাজার মূল্য ২৫ কোটি ৭৪ লাখ টাকা।

গুলশানের সুবাস্তু টাওয়ারে আপন জুয়েলার্সের শোরুমটি ছুটি থাকায় গতকাল রবিবার অভিযান চালাতে না পেরে আজ সোমবার সেখানে অভিযান চালায় শুল্ক গোয়েন্দা।

দিলদারের বড় ছেলে সাফাত আহমেদের জন্মদিনের পার্টির কথা বলে ২৮ মার্চ ঢাকার বনানীর একটি বিলাসবহুল হোটেলে নিয়ে দুই বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে ধর্ষণ করা হয় বলে বনানী থানায় একটি মামলা হয় এক সপ্তাহ আগে। ওই মামলার অপর আসামিদের মধ্যে দু’জন সাফাতের বন্ধু, বাকি দু’জন তার দেহরক্ষী ও গাড়িচালক। বৃহস্পতিবার সাফাত ও তার বন্ধু সাদমান সাকিফকে সিলেট থেকে গ্রেফতার করার পর পুলিশ তাদের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। আজ সোমবার গুলশান ও পুরান ঢাকার নবাবপুর থেকে সাফাত আহমেদের গাড়িচালক ও বডিগার্ডকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।