বড় বাড়ি’র টঙ্গিতে এখন আর গ্রাম্য সালিশ বসে না !

কাওছার আহমদ সাজু ::

বিয়ানীবাজার পৌরসভার কসবা গ্রামে অনেক কৃতি পুরুষের জন্ম । গ্রাম হিসেবে কসবা গ্রাম অনেক ঐতিহ্যকে বুকে লালন করে করে আছে । তেমনি একটি ঐতিহ্য হল কসবা গ্রামের  বড় বাড়ি টঙ্গি। কথিত আছে এখানে বসে গ্রামের সমস্যা, সম্ভাবনার নানা দিক নিয়ে অলোচনা করতেন গ্রামের মুরব্বিরা। এছাড়াও এখানে নিয়মিত সালিশে এলাকার বিভিন্ন বড় বড় সমস্যার সমাধান করা হত। কথিত আছে আনুমানিক শত বছর আগে বড় বাড়ির বাসিন্দা ওয়াজিদ আলী, ফরমান আলী ও সাজিদ আলী গ্রাম্য সালিশ বিচারের জন্য মূলত টঙ্গিটি নির্মাণ করেন। তবে টঙ্গিটি কত সালে নির্মাণ করা হয়েছিল তার সঠিক কোন তথ্য পাওয়া যায় নি। বড় বাড়ি’র টঙ্গি দেখতে প্রতিদিন উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে নানা বয়সী দর্শনাথীরা ভিড় জমান। অনেকেই আবার টঙ্গির ছবি তুলে সামাজিক মাধ্যমেও প্রচার করে থাকেন।

টঙ্গিটি সম্পর্কে জানতে চাইলে কসবা গ্রামের আব্দুর রহিম বলে মিয়া (৯০) বলেন, আমি যখন ছোট ছিলাম তখন এই টঙ্গিটি নির্মাণ করা হয়েছিলো। তখনকার সময়ে তৎকালিন ভারতের করিমগঞ্জ থেকে লোহার খুঁটিগুলো সহ বিভিন্ন যন্ত্রাধী এনে এই টঙ্গিটি নির্মাণ করা হয়েছে। গ্রাম্য বিচারকার্য পরিচালনার জন্যেই নির্মিত হয়েছিল এই টঙ্গিটি। আগেকার সময়ে গ্রাম্য শালিশের জন্য প্রসিদ্ধ কোন স্থান না থাকায় মূলত টঙ্গি নির্মাণ করা হয়েছিল। গ্রামের গণ্যমান্য ব্যাক্তিদের দ্বারা এই টঙ্গিতে বিচারকাজ চলতো। কিন্তু এখনকার সময়ে এই গ্রামের ভিতর বিভিন্ন ক্লাব, সামাজিক সংঘটন গঠনের ফলে ঐতিহ্যবাহী এই টঙ্গিতে এখন আর বিচার/ সালিশ বসে না ।