বিয়ানীবাজারে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত, দেশ জাতির কল্যাণ কামনা

শিপার আহমেদ ::

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে বিয়ানীবাজারে পালিত হচ্ছে ঈদুল ফিতর। ঈদকে সামনে রেখে অন্যান্য বারের মতো ঈদগাহর পাশাপাশি বিভিন্ন খোলা মাঠে আয়োজন করা হয় ঈদ জামাতের। তবে আগের মধ্যরাত থেকে শুরু হওয়া বৃষ্টির কারণে খোলা মাঠে কাদা ও পানি জমে যাওয়ায় ঈদের জামাতে কিছুটা বিঘ্ন সৃষ্টি হয়। বিরূপ আবহাওয়াকে মাথায় রেখে অনেক পাড়া মহল্লার মসজিগুলোতে ব্যবস্থা করা হয় ঈদের জামায়াতের।

এদিকে বরাবরের মতো ঐতিহ্যবাহী ঈমাম বাড়ি মাদ্রাসা প্রতি বছরের মতো এবার মুসল্লিদের ঢল নামে। ঈমাম বাড়ি শাহী ঈদগাহ মাঠে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। নামাজের ঈমামতি করে মাও, ইব্রাহীম আলী। পৌরশহরের সুপাতলা ওসমানি স্টেডিয়ামের অস্থায়ী ঈদগাহ মাঠে ছিল মুসল্লিদের সরব উপস্থিতি। এখানে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয় সকালে সাড়ে ৯ টায়। ঈদের নামাজ শেষে মুসলিম উম্মার শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করা হয়। নামাজ শেষে সব বয়সি মানুষ ঈদগাহ ও মসজিদ প্রাঙ্গনে কোলাকুলি করেন। ঈদের এ আনন্দ বরাবরের মতো বড়দের চেয়ে ছোটদের মধ্যে বেশি দেখা গেছে। বড়দের পাশাপাশি ছোটরাও ঈদের কোলাকুলি করেন।

এ দিকে রবিবার দিবাগত রাত থেকে বৃষ্টি ও ঝড়ো হাওয়ার কারণে কয়েকটি ঈদগাহে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি। দক্ষিণ মাথিউরা শাহীদ ঈদগাহ, সীমান্তবর্তী নয়াগ্রাম, মোল্লপুর শাহী ঈদগাহ ও কালাইউরা শাহী ঈদগাহসহ বেশ কিছু ঈদগাহ মাঠে ঈীদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়নি।

গত বছর কিশোর গঞ্জের শোলাকিয়া ঈদের নামাজে জঙ্গি হামলা হওয়ায় এবার বিয়ানীবাজারের প্রধান ঈদগাহ মাঠগুলোতে কঠোর আইনশৃঙ্খলার বাহিনীর নজরদারিতে ছিল। এসব ঈদের নামাজের সাদা পোশাকের পুলিশ মোতায়েন করে উপজেলা ও থানা প্রশাসন।