যুক্তরাষ্ট্রের নতুন ভিসা নীতি ছয় মুসলিম দেশের জন্য

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :
ছয় মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে ভিসা প্রদানের ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বুধবার দূতাবাস ও ভিসাকেন্দ্রগুলিকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে মন্ত্রণালয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ভিসা পেতে হলে আবেদনকারীর সঙ্গে সে দেশে বসবাসরত ব্যক্তির ঘনিষ্ঠ পারিবারিক সম্পর্ক থাকতে হবে। এ ধরণের সম্পর্কের মধ্যে রয়েছে বাবা-মা, স্বামী বা স্ত্রী, প্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে বা মেয়ে, পুত্রবধূ, জামাতা অথবা সৎ ভাই-বোন।

বার্তা সংস্থা এপি জানিয়েছে, এই ঘনিষ্ঠ পারিবারিক সম্পর্কের বেলায় দাদ-দাদি, নাতিন, খালা, ফুপু, চাচা-চাচী, খালাতো-চাচাতো ভাই-বোন, চাচা, ভাতিজা-ভাতিজি, শ্যালক-শ্যালিকা, বাগদত্তা এবং যৌথ পরিবারের যে কোনো সদস্য অর্ন্তভূক্ত হবে না। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী ব্যক্তিটির সঙ্গে আবেদনকারীর সম্পর্ক অবশ্যই আনুষ্ঠানিক,দালিলিক ও সাধারণভাবে প্রতিষ্ঠিত হতে হবে।

গত ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাতটি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে নির্বাহী আদেশ জারি করেন। আদালতের নিষেধাজ্ঞার পরিপ্রেক্ষিতে ৬ মার্চ সংশোধিত আদেশে তালিকা থেকে ইরাকের নাম বাদ দিয়ে ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান, সিরিয়া ও ইয়মেনের নাগরিকদের ওপর ৯০ দিনের নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন তিনি।

কিন্তু তা কার্যকর হওয়ার আগে আটকে দেন ফেডারেল বিচারকরা। রাষ্ট্রপক্ষের আপিলের পরিপ্রেক্ষিতে সোমবার শুনানি শেষে আদালত নিষেধাজ্ঞা আংশিক কার্যকরের আদেশ দেন। এর ফলে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পর্ক না থাকলে ওই সব দেশের কেউ যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।