ফোনে উড়ো চিঠির পাঁচ অ্যাপ

স্মার্টফোনে বার্তা আদান-প্রদান করেন না এমন লোক কমই আছেন। মনের ভাব প্রকাশ ও দরকারি কাজে হরহামেশাই ক্ষুদে বার্তা চালাচালি করতে হয়। এজন্য ফোনের রয়েছে ডিফল্ট মেসেজিং অ্যাপ। কিন্তু এই অ্যাপ অনেক সময় একঘেয়ে লাগে। সেই একঘেয়েমি কাটাতে আপনার ফোনে ইন্সটল করতে পারেন নতুন টেক্সটিং অ্যাপ। এমনই পাঁচ অ্যাপের খবর জেনে নিন।

গো এসএমএস প্রো
আপনার নম্বরে যদি আনলিমিটেড টেক্সটিং সুযোগ থাকে তবে এই অ্যাপটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন। এই অ্যাপের সবথেকে আকর্ষনীয় ফিচার হল এসএমএস এর মাধ্যমে থিম এবং স্টিকারের ব্যবহার। গুগল প্লে থেকে ডাউনলোড করতে পারেন অগুনিত থিম।

হ্যান্ডসেন্ট নেক্সট এসএমএস
কাস্টমাইজেশানের জন্য সেরা টেক্সটিং অ্যাপ এটি। খুব সহজ ও সাধারণ ডিজাইন ও ব্যবহার এই অ্যাপের বিশেষত্ব। উৎসবের মরশুমে বা জন্মদিকে প্রিয়জনকে ই-কার্ডের মাধ্যমে শুভেচ্ছা পাঠাতে পারবেন এই অ্যাপের মাধ্যমে। এছাড়াও  এই অ্যাপে আছে কয়েকটি থিম যা বদলে কাটাতে পারবেন অ্যাপের একঘেয়েমি।

মাই এসএমএস
অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারীদের অন্যতম পছন্দের টেক্সটিং অ্যাপ মাই এসএমএস। অ্যানড্রয়েড ছাড়াও এই অ্যাপটি পাওয়া যায় উইন্ডোজ, ম্যাক ও ওয়েব ব্রাউজারে। যার মাধ্যমে আপনার কম্পিউটার থেকে আপনার ফোন নম্বর ব্যবহার করে SMS করতে পারবেন। এছাড়াও মাই এসএমএস-এ আছে গ্রুপ মেসেজিং ও এমএসএস-এর সুবিধা।

সিগনাল প্রাইভেট মেসেঞ্জার
সিকিউরিটি যদি আপনার প্রধান চিন্তার কারণ হয় তাহলে ব্যবহার করতে পারেন সিগনাল প্রাইভেট মেসেঞ্জার। এনক্রিপশনের মাধ্যমে আপনার ফোনের সমস্ত মেসেজ ও অ্যাটাচমেন্ট সুরক্ষিত রাখে এই অ্যাপ।

চম্ব এসএমএস
বহুদিন বাজারে রয়েছে এই অ্যাপটি। অ্যানড্রয়েড ব্যবহারকারিদের মধ্যে অন্যতম গ্রহণযোগ্য টেক্সটিং অ্যাপ এটি। এই অ্যাপের প্রধান ফিচারগুলি হলো অসংখ্য ইমোজি, পাসকোডের মাধ্যমে অ্যাপ ও মেসেজ লক, প্রাইভেসি অপশন, ব্ল্যাকলিস্টের সুবিধা ও কুইক রিপ্লাই বাটন। এছাড়াও আপনি যদি অ্যানড্রয়েড ওয়্যার ব্যবহার করেন তবে আপনার স্মার্টওয়াচেই পড়ে ফেলতে পারবেন আপনার ইনকামিং মেসেজ।