রাবিতে তিন দফা দাবিতে আদিবাসী শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

‘বাংলার আদিবাসীরা আজ সুখে নেই। ধর্মীয় অনুভূতির কারণে বারবার আমাদের ওপর আক্রমণ হচ্ছে। পর্যটনের দোহাই দিয়ে আমাদের পূর্বপুরুষদের ভিটামাটি কেড়ে নেয়ার চেষ্টা চলছে। আজ আমাদের অস্তিত্ব হুমকির মুখে।’ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আদিবাসী ছাত্রপরিষদের উদ্যোগে এক মানববন্ধনে রাজশাহী মহানগর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্রপরিষদের সভাপতি দীপেন চাকমা এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

মহানগর পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সাধারণ সম্পাদক দীপন চাকমার পরিচালনায় মানববন্ধনে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন, আদিবাসী ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি নকুল পাহান, সাধারণ সম্পাদক তরুণ মুন্ডা, মহানগর তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মংখেয় রাখাইন প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন, দেশের বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে আমাদের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রয়েছে। তবে পার্বত্য চুক্তির ২০ বছর পেরিয়ে গেলেও আজ পর্যন্ত তা পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়ন পাইনি। বিভিন্ন দেশে আদিবাসী দিবসকে রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা হলেও আমাদের দেশে সেটাও পালন করা হয় না। সমগ্র পাহাড়িদের দাবি ৯ আগস্টকে জাতীয়ভাবে আদিবাসী দিবস হিসেবে পালন করতে হবে।

মানববন্ধন থেকে বক্তারা তিন দফা দাবি পেশ করেন। দাবিগুলো হলো, আদিবাসী হিসেবে সাংবিধানিক স্বীকৃতি দেয়া, পার্বত্য চুক্তির পূর্ণ বাস্তবায়ন করা এবং সমতল আদিবাসীদের জন্য স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠনের করা।

প্রসঙ্গত, আদিবাসী ছাত্র পরিষদের মানবন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের নেতারা বক্তব্য দেন।