হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বেড়ে প্রায় দ্বিগুণ

বড়লেখা প্রতিনিধি

দাম কম হওয়ায় এ বছর অনেক কৃষক পেঁয়াজে লাভের মুখ দেখেনি। জেলা পর্যায়ে পাঁচ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি করতে হয়েছে কৃষকদের। গত মাসেও রাজধানী ঢাকায় পেঁয়াজের দাম ছিল ২০ থেকে ২৫ টাকার মধ্যে। কিন্তু এক মাসের মধ্যে তা প্রায় দ্বিগুণ হয়ে গেছে।কারওয়ান বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরা বাজারে ভাল পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকা থেকে ৫৫ টাকায়। তবে ভারতীয় বড় পেঁয়াজের দাম একটু কম। ৪৫ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা গেছে। পাইকারি প্রতি পাঁচ কেজি বিক্রি হচ্ছে ২২০ টাকা থেকে ২৪০ টাকায়।বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারি প্রতিষ্ঠান টিসিবির হিসাবে গত এক মাসে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে শতকরা ৫৭.৪১ শতাংশ। এর মধ্যে আমদানি করা পেঁয়াজের দাম বেড়েছে ৫৯.৫৭ শতাংশ। আর দেশীয় পেয়াঁজের দাম বেড়েছে ৫৮.৩৩ শতাংশ। তবে টিসিবির হিসাব আর প্রকৃত বাজার দরে বরাবর একটি বড় পার্থক্য থাকে। রাজধানীর কাওয়ান বাজারের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এক মাস ধরে পেঁয়াজের দাম বাড়তির দিকে ছিল। তবে কয়েক দিন ধরে তা অস্বাভাবিকভাবে বেড়েছে। বর্ষা মৌসুম ও আমদানি কম হওয়ায় পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধি হয়েছে বলে মনে করছেন ব্যবসায়ীরা। অতিরিক্ত মুনাফার লোভে ব্যবসায়ীদের মজুদকেও একটি কারণ বলেছেন তারা।কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের হিসাবে বাংলাদেশে পেঁয়াজের চাহিদার চার ভাগের এক ভাগের মত মেটানো হয় আমদানি করে। প্রধানত ভারত থেকেই আসে এই রান্নার উপকরণ। আর আমদানি মূল্যের ওপর দেশীয় বাজার অনেকটাই নির্ধারিত হয়। পেঁয়াজের চাহিদার অন্তত ২০ থেকে ২৫ শতাংশ আমদানি করে মেটানো হয়। দেশে এখন পেঁয়াজের উৎপাদন হয় ২২ লাখ টন। গত বছর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি হয় সাড়ে আট লাখ টন। সম্প্রতি বন্যায় ভারতে পেঁয়াজের উৎপাদন ভীষণভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এ কারণে সে দেশে পণ্যটির দাম বেড়েছে। ভারতের ইকোনোমিক টাইমস এর প্রতিবেদন অনুযায়ী গত দুই সপ্তাহে পেঁয়াজ রপ্তানিকারক দেশ পাকিস্তান, চীন ও তুরস্কে পণ্যটির দাম বেড়ে দ্বিগুণ হয়েছে। রপ্তানিকারক দেশে মূল্যবৃদ্ধির পাশাপাশি চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে সাম্প্রতিক জলাবদ্ধতায় পেঁয়াজের একটি বড় চালান নষ্ট হয়েছে। এটাও সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধির একটি কারণ বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। কারওয়ান বাজারের পেঁয়াজ ব্যবসায়ী মালেক বলেন, ‘ দিন গেলেই বেশি দামে পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে। এক মাস আগে যে পেঁয়াজ কিনেছি ২৫ টাকা কেজি দরে। সেই পেঁয়াজ এখন কিনতে হচ্ছে ৫০ টাকা দরে। আগামীকাল গেলে দেখা যাবে আরো বাড়তি।’ পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, ‘কোরবানির ঈদের আগেই পেঁয়াজের দাম সহনীয় পর্যায়ে চলে আসবে। ইতিমধ্যে চালের দাম কমেছে। পেঁয়াজের দামও কমবে।’