পেঁয়াজের ঝাঁজ,দিশেহারা মানুষ

জুনেদ ইকবাল ::

পেঁয়াজের চড়া দামে সাধারণ মানুষ দিশাহারা হয়ে পড়েছে। আকস্মিক মূল্য বৃদ্ধিতে হতবাক ক্রেতা সাধারণ। সেখানে গত এক সাপ্তাহের ব্যবধানে পেঁয়াজের চড়ামূল্যে প্রায় দিশেহারা হয়ে পড়েছেন সকল শ্রেণিপেশার নাগরিকরা। বিশেষ করে স্বল্প আয়ের শ্রমজীবী লোকজন এখন ‘মরার ওপর খাড়ার ঘা’ অনুভব করছেন।বিয়ানীবাজার পৌরশহরে সর্বোচ্চ ৬০টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রির সংবাদ পাওয়া গেছে। আসন্ন ঈদুল আযহা পর্যন্ত মূল্যবৃদ্ধির এ ধারা অব্যাহত থাকলে দাম কোথায় গিয়ে পৌঁছে তা ভেবে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন  ক্রেতারা।

জানা যায়, গত ১ সাপ্তাহের ব্যবধানে বা পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি ২০/৩০ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি পেয়েছে। স্থানীয় ব্যবসায়ীরা এ বিষয়ে পাইকারী বাজারে মূল্যবৃদ্ধিকে দায়ী করছেন। তবে ক্রেতারা মনে করছেন ব্যবসায়ীরা অধিক মুনাফার জন্য মাত্রাতিরিক্ত মূল্য আদায় করছেন। এ নিয়ে জনসাধারণের মধ্যে ব্যাপক হতাশা এবং ক্ষোভ বিরাজ করছে। আসন্ন ঈদুল আযহার আগেই পেঁয়াজের মূল্য স্থিতিশীল করতে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানিয়েছেন ক্রেতারা।

রবিবার পৌরশহরসহ বিভিন্ন হাট-বাজারে ঘুরে জানা গেছে, ৫০টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হলেও বিভিন্ন বাজারে ৬০টাকা কেজি দরেও পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে।

এ বিষয়ে হাসান আহমদ নামের এক ক্রেতার সাথে আলাপকালে তিনি বিয়ানীবাজারকণ্ঠকে বলেন, পেঁয়াজের মূল্যবৃদ্ধিতে হতাশা প্রকাশ করে বলেন, আমরার আর বাচার উপায় নাই, কাম-কাজও ১দিন পাইলে ৩দিন বেকার থাকতে হয়। চাউলের কেজি ৯০টাকা, পেঁয়াজের কেজি ৬০টাকা।’