লেস্টার সিটির হয়ে অভিষেক বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত হামজার

বিয়ানীবাজারকণ্ঠ.কম

উইলফ্রেড এনদিদির বদলি হয়ে যখন মাঠে নামছিলেন হামজা দেওয়ান চৌধুরী, ধারাভাষ্যকারের কণ্ঠে উঠে এল ‘বাংলাদেশ’। লেস্টার সিটির জার্সিতে গত পরশু অভিষেক হলো হামজার। ১৯ বছর বয়সী মিডফিল্ডারের পরিচয় দিতে গিয়েই ধারাভাষ্যকার বলছিলেন, হামজা বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত!

তাঁর জন্ম, বেড়ে ওঠা ইংল্যান্ডেই। লেস্টারশায়ারে। মা ক্যারিবিয়ান। কিন্তু বাবা বাংলাদেশি! ইংল্যান্ডের সর্বোচ্চ স্তরের ফুটবলে কোনো ক্লাবে খেলা প্রথম বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফুটবলার হয়ে গেলেন হামজা চৌধুরী।

উপলক্ষটাও দারুণ, লিভারপুলের বিপক্ষে লিগ কাপের ম্যাচ। অভিষেকটাও জয়েই রঙিন হলো হামজার। লিগ কাপের তৃতীয় রাউন্ডের ম্যাচটা ২-০ গোলে জিতে লিভারপুলকে বিদায় করে দিয়েছে লেস্টার।

৮৪ মিনিটে হামজা মাঠে যখন নামছেন, ততক্ষণেই অবশ্য লেস্টারের জয় প্রায় নিশ্চিত। ৬৫ মিনিটে শিনজি ওকাজাকি ও ৭৮ মিনিটে ইসলাম স্লিমানির দুর্দান্ত গোলে লেস্টার তখনই এগিয়ে ছিল ২-০-তে।
ম্যাচে অবশ্য দুর্দান্ত কৌশল নিয়েই জিতেছে লেস্টার। প্রথমার্ধে কুতিনহো-রবার্টসনদের দাপুটে ফুটবলের সামনে কিছুটা কোণঠাসাই ছিল ক্রেইগ শেক্সপিয়ারের দল।

কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায়। লিভারপুলের দুর্বল রক্ষণের সুযোগ নিয়ে গোল দুটি করে বসে! ওকাজাকির গোলটি কর্নার থেকে বল পেয়ে, আর স্লিমানির গোলটি তো চোখধাঁধানো। বক্সের বাইরে থেকে বাঁ পায়ের দুর্দান্ত শটে।

তা যা-ই হোক, বাংলাদেশের মানুষের কাছে এই ম্যাচের বড় গল্প তো হামজার অভিষেকই। তাঁর সৌজন্যেই যে প্রথমবার ইউরোপের শীর্ষ স্তরের ফুটবলে কোনো ম্যাচের ধারাভাষ্যে শোনা গেল ‘বাংলাদেশ’ নামটা।

হামজা অবশ্য ‘নিজের শহরের’ ক্লাব লেস্টারের জার্সিতে প্রথমবার মাঠে নামতে পেরেই খুশি। ম্যাচের পর ইনস্টাগ্রাম, টুইটারে লিখেছেনও, ‘নিজের শহরের ক্লাবের হয়ে অভিষেক। কী দুর্দান্ত অনুভূতি!’
সূত্র: গোলডটকম