ঢাকায় নিখোঁজ সরিষাবাড়ীর মেয়র শ্রীমঙ্গলে উদ্ধার

বিয়ানীবাজারকণ্ঠ.কম ::

ঢাকার উত্তরা থেকে নিখোঁজের এক দিন জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভার মেয়র ও আওয়ামী লীগ নেতা রুকনুজ্জামানকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শাহ জালাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মেয়রকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায়। তবে এ বিষয়ে আর বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

এদিকে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের উত্তর বিভাগের উপ-কমিশনার শেখ নাজমুল আলম জানান, মেয়র রুকনুজ্জামানকে ঢাকায় আনা হবে। তিনি বলেন, ‘তিনি কীভাবে শ্রীমঙ্গল গেলেন, কারা তাকে নিয়েছে, সেসব বিষয় নিয়ে বিস্তারিত জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।’

গত সোমবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে রাজধানীর উত্তরা ১৩ নম্বর সেক্টরের বাসা থেকে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হন রুকনুজ্জামান। এ ঘটনায়  থানায় একটি জিডি করেন তার ভাই।

মেয়র মো. রুকনুজ্জামানের বাড়ি সরিষাবাড়ীর সাতপোয়া গ্রামে। একসময়ের ইতালিপ্রবাসী রুকনুজ্জামান বিএনপির সক্রিয় কর্মী ছিলেন। ২০১৪ সালে তিনি আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগে যোগ দেন। পরের বছর আওয়ামী লীগের হয়ে নির্বাচন করে মেয়র নির্বাচিত হন। তৈরি পোশাকের ব্যবসাও আছে তার। একই সঙ্গে একটি বায়িং হাউসেরও মালিক। ব্যবসায়িক কার্যক্রম দেখাশোনার জন্য উত্তরায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে থাকেন তিনি। সঙ্গে থাকেন দেহরক্ষী, এক ভাতিজা, গাড়িচালক এবং এলাকার আরও দুই ছেলে।

নিখোঁজ হওয়ার প্রায় ১২ ঘণ্টা আগে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ‘মেয়র রুকুন’ নামের আইডি থেকে একটি স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। তাতে বলা হয়, ‘…নতুন প্রজন্মের কাছে আমার আহ্বান যে আমাকে হত্যা করা হলেও তোমাদের সিক্ত ভালোবাসা যেন অটুট থাকে এবং আমার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা তোমরা ধরে রাখবা।’

নিখোঁজের পর পৌর মেয়রের বড় ভাই সাইফুল ইসলাম বলেন, মেয়রকে স্থানীয় এক ঠিকাদার সম্প্রতি হুমকি দেন। এ ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়েছিল।