বিয়ানীবাজারে বিএনপি’র বিক্ষোভ মিছিল পুলিশী বাঁধায় পন্ড

সুফিয়ান আহমদ::

বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালত কর্তৃক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ আসরের পর বিয়ানীবাজারে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করার প্রস্তুতি নেয় বিয়ানীবাজার উপজেলা ও পৌর বিএনপি।

কিন্তু পুলিশী বাঁধায় পন্ড হয়ে যায় বিএনপি’র কেন্দ্র ঘোষিত এ কর্মসূচি। যার ফলে বিয়ানীবাজারে দলীয় কর্মসূচি পালন করতে পারে নি রাজপথের বিরোধীদল বিএনপি। এনিয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন দলটির নেতারা।

জানা যায়, বিএনপি চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে আদালত কর্তৃক গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে সারাদেশে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভার ঘোষণা দেয় দলটি। সে হিসেবে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি পালনের জন্য পৌরশহরের ইনার কলেজ রোডে আসরের পর থেকে জড়ো হতে থাকেন দলের বিভিন্নস্থরের নেতাকর্মীরা। কিন্তু তাতে বাঁধ সাধে পুলিশ। বিএনপি’র মিছিলের কারণে পৌরশহরে আইনশৃঙ্খলা পরিসি’তির অবনতি ও সহিংসতা হতে পারে এই আশংকায় বিক্ষোভ মিছিলে বাঁধা দেয় পুলিশ। যার ফলে পন্ড হয়ে যায় বিএনপি’র কেন্দ্র ঘোষিত এই কর্মসূচি। দলীয় কর্মসূচি পালন করতে না পারায় ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন দলটির নেতারা। তারা পুলিশ বাহিনীর এমন বাঁধায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে পৌর বিএনপি’র সভাপতি আবু নাসের পিন্টু বলেন, আমাদের দলের চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা ও হয়রানীমূলক মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির প্রতিবাদের আমরা কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু পুলিশ তাতে বাঁধা দিয়ে আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকারকে হরণ করেছে। আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই।

এ বিষয়ে ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক ছিদ্দিক আহমদও। তিনি বলেন, সরকার মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাদের দলের চেয়ারপার্সন, আপোসহীন নেত্রী, গণতন্ত্রের অগ্নিকণ্যা বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে তাকে স্তব্ধ করে দিতে চায়। তারা আবার ৫ই জানুয়ারীর মত ভোটবিহীন নির্বাচন করে ক্ষমতায় যেতে চায়। কিন্তু দেশের আপামর জনতা তাদের সেই আশা পূরণ হতে দিবে না। আমাদের নেত্রীসহ আমাদের উপর যতই মামলা হামলা দেয়া হোক তাতে কোন লাভ হবে না। ছিদ্দিক বলেন, বিএনপি দেশের শান্তিপ্রিয় দল। আজ আমরা কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচি শান্তিপূর্ণভাবে পালন করতে চেয়েছিলাম। কিন্তু তাতে সরকারের পেটুয়া পুলিশ বাহিনী বাধা দিয়ে আমাদের গণতান্ত্রিক অধিকারে তারা হস্তক্ষেপ করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলতে চাই আপনারাও মনে রাখবেন- ‘এই দিন দিন নয়, আরো দিন আছে’।

বিএনপি’র কর্মসূচি পন্ডের বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, জনগনের জানমালের নিরাপত্তা বিধান করা আমাদের দায়িত্ব। আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করেছি। তাছাড়া আমাদের কাছে খবর ছিলো, এই বিক্ষোভকে ঘিরে সহিংসতা হতে পারে আর সে হিসেবে আমরা কড়া অবস্থানে ছিলাম।