নির্মাণ অর্থহীন ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ !

বিনোদন ডেস্ক,

গত ২০ অক্টোবর ধুমধামের সঙ্গে সারা দেশের ১২৮টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় মনোয়ার হোসেন ডিপজল ও চিত্রনায়িকা মৌসুমী অভিনীত বহুল আলোচিত ছবি ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। মুক্তির পর থেকেই সারা দেশের সব প্রেক্ষাগৃহেই রমরমিয়ে চলছে মনতাজুর রহমান আকবর পরিচালিত এ ছবিটি। চারিদিক থেকেই প্রসংশায় ভাসছে ছবিটি।

তবে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ ছবিকে ঘিরে সমালোচনাও কম হচ্ছে না। ট্রেলার এবং ছবি দেখে সোশ্যাল মিডিয়ায় কেউ কেউ নেতিবাচক মন্তব্যও করছেন। তাদের মতে, ‘২০১৭ সালে এসে এমন পুরোনো ধারণার একটি ছবি বানানোর মানেই হয় না।’

তার উত্তরও অবশ্য দিয়েছে সিলেটের নন্দিতা সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ। তারা বলেছেন, ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ সিনেমাগুলো তাদের উদ্দেশ্যই বানানো হয় যারা হলের রেগুলার দর্শক। যারা প্রতি শুক্রবার এলেই প্রেক্ষাগৃহে সিনেমা দেখতে আসেন। যেসব দর্শক বছরে বা দুই বছরে একবার সিনেমা হলে আসেন তাদের জন্য এই সিনেমা নয়। যারা হলের রেগুলার দর্শক তাদের পছন্দকেই হল মালিকেরা প্রাধান্য দিয়ে থাকেন এবং সেটাই স্বাভাবিক।

চলতি বছরের ১৬ ফেব্রুয়ারি বিএফডিসিতে মহরতের মাধ্যমে ছবিটির আনুষ্ঠানিক কাজ শুরু হয়। ১৩ জুলাই  সাভারে ডিপজলের বাড়িতে ছবির কয়েকটি দৃশ্যধারণ শেষে ছবিটির কাজ শেষ করা হয়। ২৯ আগস্ট  বিনা কর্তনে সেন্সর বোর্ড থেকে ছাড়পত্র পায় ছবিটি। আর ২৭ সেপ্টেম্বর  ইউটিউবে প্রকাশ পায় ছবির ট্রেলার।

‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ মূলত একটি পারিবারিক অ্যাকশনধর্মী ছবি। এর গল্প লিখেছেন আব্দুল্লাহ জহির বাবু। চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন মনতাজুর রহমান আকবর। ছবিটি প্রযোজনা করেছে রাজেশ ফিল্মস।

ছবির কেন্দ্রীয় চরিত্র দুলাভাইয়ের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন ভিলেন থেকে নায়ক বনে যাওয়া মনোয়ার হোসেন ডিপজল। তার স্ত্রীর ভূমিকায় আছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। ডিপজল-মৌসুমী জুটির এটি দ্বিতীয় ছবি। ছবিতে আরও আছেন চিত্রনায়ক বাপ্পী চৌধুরী ও বিদ্যা সিনহা মীম। মীম অভিনয় করেছেন ডিপজলের শালীর চরিত্রে।

এর আগে ছবি মুক্তির দিন রাজেস ফিল্মস এর কর্ণধার মো. নাদির খান ঘোষণা দিয়েছিলেন, ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ যদি লাভের মুখ দেখে তবে সেই লভ্যাংশের একটি অংশ পদ্মাসেতুর নির্মাণ কাজে ব্যয় করা হবে। অন্য আরেকটি অংশ ব্যয় করা হবে গরীব দুঃখী ও অসহায়দের উন্নয়নে। সমালোচকদের বাঁকা কথার জবাব দিয়ে ছবিটি কতটা ব্যবসা করতে পারে সেইটা বোঝা যাবে কদিন বাদেই। সেই পর্যন্ত ধৈর্য ধরতেই হচ্ছে। তথ্যসূত্র: উইকিপিডিয়া