দীপিকার ‘মাথার দাম’ ১০ কোটি রুপি

বিনোদন ডেস্ক,

বলিউড অভিনেত্রী দীপিকা পাড়ুকোনের নাক কোটে ফেলার হুমকির পর, এ বার তার মাথা কেটে আনলে পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন হরিয়ানা বিজেপির জ্যেষ্ঠ নেতা, রাজ্য দলের মিডিয়া মুখপাত্র সুরজ পাল আমু।

শুধু দীপিকা নন, পদ্মাবতী ছবির পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানসালির  জন্যও একই ঘোষণা সুরজের। ‘মাথার দাম’ ধার্য করেছেন ১০ কোটি রুপি। একই সঙ্গে ছবির প্রধান অভিনেতা রণবীর সিংহের পা ভেঙে দেয়ারও হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার দীপিকা পাড়ুকোনের নাক কেটে নেয়ার হুমকি দেয়া রাজস্থানের রাজপুত করণী সেনাকেও সমর্থন জানিয়েছেন এই বিজেপি নেতা।

সুরজ বলেন, ‘কেউ কেউ সঞ্জয়দের মাথার দাম পাঁচ কোটি বলছে। আমরা ১০ কোটি বলছি।’

পরে তিনি বলেন, ‘আইন আমরা নিজেদের হাতে নেব না। কিন্তু কেউ যদি আমাদের বোন বা মেয়েদের দিকে চোখ তুলে তাকায়, আমরা জানি কীভাবে সেই চোখ উপড়ে নিতে হবে।’

পরিচালক সঞ্জয়ের মাথার দাম পাঁচ কোটি টাকা নির্ধারণ করেছিল মেরঠের একটি সংগঠন। তবে বিজেপির কোনও নেতা এ ধরনের মন্তব্য এর আগে করেননি। এই হুমকিতে অন্য ইঙ্গিতের আভাস পাচ্ছেন বলিউডের একটা বড় অংশ।

ছবিতে রাজপুতদের ইতিহাস বিকৃত করা হয়েছে বলে শুটিং পর্ব থেকেই নানা গোলমাল বাধিয়ে এসেছে করণী সেনা। চলতি বছরের জানুয়ারিতে জয়পুরে ছবির সেটে ভাঙচুর চালায় তারা। নষ্ট করে দেয়া হয় শুটিংয়ের বহুমূল্য সামগ্রী। মারধর করা হয় পরিচালককে। সে সময় ছবির শুটিং সাময়িকভাবে বন্ধ করতে বাধ্য হন সঞ্জয়। তার পর ছবির পোস্টার আর ট্রেলার মুক্তি ঘিরেও হিংসা ছড়িয়েছে দেশের নানা প্রান্তে। রানি পদ্মাবতীর নাচের দৃশ্য নিয়ে আপত্তি উঠেছে বহু জায়গায়। সবচেয়ে বড় আপত্তির জায়গা হল আলাউদ্দিন খিলজির সঙ্গে রানি পদ্মাবতীর ঘনিষ্ঠ স্বপ্ন দৃশ্য।

ছবিতে এমন কোনও দৃশ্য নেই বলে বারবার জানিয়েছিলেন পরিচালক নিজে। কিন্তু তাতে বিক্ষোভ-আন্দোলন থামানো যায়নি।

সব হুমকি আর বাধা উপেক্ষা করে ১ ডিসেম্বর সিনেমা মুক্তির প্রস্তুতি নেন বানসালি আর তার টিম। কিন্তু ছবিটি আটকে দিয়েছে ভারতের সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন (সিবিএফসি)। কাজেই ১ ডিসেম্বর মুক্তি পাচ্ছে না ‘পদ্মাবতী’।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা