কাবা শরিফ ও মসজিদে নববীর ছবি তোলায় নিষেধাজ্ঞা

ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের প্রধান দুই মসজিদ কাবা শরিফ ও মদিনার মসজিদে নববীর ছবি তোলায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সৌদি আরব। মসজিদ দুটির পবিত্রতা রক্ষা এবং এর মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রাখাই এই নিষেধাজ্ঞার কারণ বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। আদেশ অমান্য করলে সাজা পেতে হবে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।

সৌদি আরবের তথ্য ও গণমাধ্যম বিভাগের মহাপরিচালক এর উদ্ধৃতি দিয়ে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সিদ্ধান্ত দিয়েছে বলে জানিয়েছে প্রভাবশালী দৈনিক আল নূর। এই মসজিদ ‍দুটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে আছে দেশটির সরকার।

মুসলিম বিশ্বের কাছে অন্তত পবিত্র মর্যাদাপূর্ণ এই দুই মসজিদ। এর মধ্যে কাবা শরিফ নামে পরিচিত মসজিদের পুরো নাম বায়তুল্লাহ অল হারাম বিশ্বে মুসলিমদের প্রধান মসজিদ হিসেবে পরিচিত। এটি আর মদিনায় মহানবী (সা.) এর আমলে প্রতিষ্ঠিত হয় মসজিদে নববী। হজ, ওমরাহ বা অন্য কোনো প্রয়োজনে সৌদি আরব গেলে মুসলমানদের মধ্যে মসজিদ দুটির পাশে ছবি তোলার প্রবণতা রয়েছে।

তবে সৌদি সরকার বলছে, পবিত্র স্থানগুলোতে ছবি তোলা ও ভিডিও ধারণের ফলে ইবাদতকারীদের একাগ্রতা নষ্টসহ তাওয়াফ ও নামাজ আদায়ে বাধা সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে হজ মৌসুমে ছবি তোলার কারণে স্বাভাবিক চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি ও জনজট সামাল দিতে নিরাপত্তা ও মসজিদদ্বয়ের খাদেমদের সমস্যায় পড়তে হয়।

ইবাদতের ভাবগম্ভীরতা রক্ষা সহ যিয়ারতকারীদের নির্বিঘ্নে চলাচলের উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতেই অচিরেই ক্যামেরা ও ক্যামেরাযুক্ত মোবাইল ফোন নিয়ে প্রবেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হবে বলেও জানিয়েছে সৌদি দৈনিক আল নূর।

আইনটি কার্যকর হলে নিষিদ্ধ এলাকায় ক্যামেরা কিংবা ক্যামেরা সম্বলিত কোনো ডিভাইস বহন করলে সেটা জব্দ করা হবে। আর নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কেউ ছবি তুললে বা ভিডিও ধারণ করলে সৌদি আরবের আইন অনুযায়ী তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি।