৩৫০০ কোটিতে সাজল বিশ্বকাপের ফাইনাল মঞ্চ

ক্রীড়া ডেস্ক,

১৪ জুন থেকে ১৫ জুলাই রাশিয়ায় বসছে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। ২০০৬ ফিফা বিশ্বকাপের পর প্রথমবারের মতো ইউরোপের মাটিতে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবলের এই মহাযজ্ঞ। রাশিয়ার ১১ শহরের ১২টি স্টেডিয়ামে গড়াবে মেসি-নেইমার-রোনালদোদের ফুটবলযুদ্ধ। ১৫ জুলাই মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে হবে শিরোপা ফয়সালা।

ইতোমধ্যে বিশ্বকাপের সবগুলো স্টেডিয়াম প্রস্তুত করে ফেলেছে রুশ সরকার। ১২টি স্টেডিয়ামের মধ্যে অনেকের নজর কেড়েছে বিশ্বকাপের ফাইনাল মঞ্চ লুঝনিকি। প্রায় ৮০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন এই স্টেডিয়ামটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৩৫০ মিলিয়ন ইউরো। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৩ হাজার ৫০০ কোটির মতো।

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর সর্ববৃহৎ স্টেডিয়াম হিসেবে পরিচিত লুঝনিকি। মস্কোভা নদীর বাঁকে জন্মানো সুগভীর তৃণক্ষেত্র থেকে ‘লুঝনিকি’ নামটির উৎপত্তি। ১৯৮০ সালের গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকের প্রধান মাঠ ছিল এটি। সে সময় দর্শক ধারণ সংখ্যা ছিল লক্ষাধিক। ১৯৯২ সালে লুঝনিকি নামে আত্মপ্রকাশ ঘটে স্টেডিয়ামটির।