চট্রগাম যাওয়ার পথে সিলেট থেকে গৃহবধু অপহরন করে ধর্ষন : আটক ১

গোলাপগঞ্জ প্রতিনিধি ::

সিলেট থেকে চট্রগ্রাম যাওয়ার পথে সিলেট রেলওয়ে স্টেশন থেকে এক গৃহবধুকে কৌশলে অপহরন করে ধর্ষনের অভিযোগে বিয়ানীবাজার বিজিবি নিরাপত্তারক্ষীদের সহায়তায় একজনকে আটক করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। আটককৃত ব্যাক্তি গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ ইউনিয়নের কানিশাইল নয়াপাড়া গ্রামের মৃত কুটু মিয়ার ছেলে রেহান আহমদ (৩৫)। শনিবার দুপুর আনুমানিক ২টায় বিয়ানীবাজার বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ৫২ ব্যাটলিয়ন ক্যাম্পের নিরপত্তা রক্ষীদের সহায়তায় রেহানকে আটক করা হয়। ঘটনার শিকার আনুমানিক ৩০ বছর বয়সী গৃহবধু সুলতানা আক্তার (ছদ্মনাম) বাদী হয়ে গোলাপগঞ্জ মডেল থানায় অভিযুক্ত রেহান ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে অপহরন করে ধর্ষনের অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন যার নং ১০ তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮। সামাজিক নিরাপত্তার কারনে গৃহবধুর পূর্ণ পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।
মামলার এজাহার সূত্রে জানাগেছে গত ২৭ জানুয়ারী গৃহবধু সুলতানা স্বামীর কর্মস্থল চট্রগাম থেকে সিলেট শাহপরান এলাকায় আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে আসেন। গত ১৫ ফেব্রুয়ারী দুপুরে সিলেট থেকে চট্রগামের উদ্দেশ্যে যাওয়ার জন্য তিনি সিলেট রেলওয়ে স্টেশনে গেলে সেখানে এক অপরিচিত মহিলার সাথে পরিচয় হয়। অপরিচিত মহিলাটি মুলত অভিযুক্ত রেহানের সহযোগী। একপর্যায়ে সুলতানাকে কৌশলে স্টেশনের বাইরে এনে অপহরন করে মুখে কাপড় গুজে সিএনজি অটোরিক্সা দিয়ে ঢাকাদক্ষিনে নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসে রেহান। সেখানে দুদিন আটকে রেখে তার সহযোগীদের নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষন করে। ১৭ ফেব্রুয়ারী সুলতানাকে ঢাকাদক্ষিণ থেকে প্রাণনাশের ভয় দেখিয়ে একটি সিএনজি যোগে সুনামপুর হয়ে বিয়ানীবাজার যাওয়ার পথে পথিমধ্যে বিজিব ক্যাম্পের নিরাপত্তারক্ষীদের দেখে সাহায্যের জন্য চিৎকার দিয়ে সিএনজি থেকে লাফ দেন। সুলতানাকে আটকাতে রেহান ও লাফ দেয় এসময় সিএনজি অটোরিক্সার চালক গাড়ী নিয়ে পালিয়ে গেলেও নিরাপত্তারক্ষীরা রেহানকে আটক করতে সক্ষম হন। পরবর্তীতে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ দুজনকে নিরাপত্তা হেফজতে আনে। গোলাপগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ একে এম ফজলুল হক জানান, রেহানকে বাদীর মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।