প্রধানমন্ত্রী গেলেন জাফর ইকবালকে দেখতে

ছুরিকাঘাতে আহত ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালকে দেখে গেলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার ( ৫ মার্চ) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তিনি নিজে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) গিয়েছিলেন।

হাসপাতালে উপস্থিত হয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আহত ড. মুহাম্মদ জাফর ইকবালের সঙ্গে কথা বলেন, তার শয্যাপাশে কিছু সময় কাটান এবং চিকিৎসার সার্বিক খোঁজ-খবর নেন বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম।

গত শনিবার (৩ মার্চ) বিকালে সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) মুক্তমঞ্চে এক অনুষ্ঠানে ড. জাফর ইকবালকে ছুরিকাঘাত করের ফয়জুল ইসলাম নামের এক যুবক।

এসময় উপস্থিত শিক্ষার্থীরা তাকে ধরে গণপিটুনির পর পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

অধ্যাপক ড. জাফর ইকবালকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সামরিক বাহিনীর হেলিকপ্টারে করে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) এনে ভর্তি করা হয়। এরপর থেকে তিনি সেখানেই চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

রোববার সিএমএইচ কর্তৃপক্ষ সংবাদ সম্মেলন করে জানায়, ড. জাফর ইকবাল মানসিকভাবে সুস্থ রয়েছেন। তবে পুরোপুরি সেরে উঠতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে।

অধ্যাপক জাফর ইকবালের ওপর হামলার পরপরই বিষয়টি ব্যক্তিগতভাবে গুরুত্ব দিয়ে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তারই অংশ হিসেবে তিনি ড. জাফর ইকবালকে দেখতে সিএমএইচে গেছেন।

অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

ইতোমধ্যে অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা দুই কনস্টেবলকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

ঘটনার রাতেই হামলাকারী ফয়জুল ইসলামের মামাকে পুলিশ আটক করে। এরপর গতকাল রোববার (৪ মার্চ) সিলেটের জালালাবাদ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। রাতে ফয়জুলের বাবা হাফেজ আতিকুর রহমান ওরফে কুরশ এবং মা মিনারা বেগমকে আটক করে পুলিশ।