নয়াপল্টনে সংঘর্ষের ঘটনায় বিয়ানীবাজার স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি গিয়াস গ্রেফতার

বিয়ানীবাজারকণ্ঠ ডেস্ক ::

নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সাথে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে আসামি করে তিনটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। এছাড়া এ ঘটনায় পুলিশ এ পর্যন্ত অন্তত ৫০ জনকে আটক করেছে। এরমধ্যে বিয়ানীবাজার উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি, জেলা বিএনপির সদস্য ও উপজেলা কমিটির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মো. গিয়াস উদ্দিন রয়েছেন। গতকাল বিকালে বিএনপি অফিসের সন্নিকটের পলওয়েল মার্কেটের সামন থেকে ডিবি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তিনি ব্যবসার কাজে ঢাকা গিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। আজ দুপুরে তাকে আদালতে নেওয়ার প্রস্তুতি চলার কথা জানিয়েছেন বিয়ানীবাজার পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব সরওয়ার আলম সুমন।

পল্টন থানায় এই তিনটি মামলা দায়ের হয়েছে বলে বুধবার রাতে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন থানার ওসি মাহমুদুল হাসান। তিনি বলেন, “গাড়ি ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ, রাস্তা অবরোধ, পুলিশকে মারধর, সরকারি কাজে বাধার অভিযোগে এসব মামলা হয়।”

মামলাগুলোতে বিএনপি নেতা মির্জা আব্বাসকেও আসামি করা হয়েছে জানিয়ে ওসি বলেন, এসব মামলায় অন্তত ৫০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

নির্বাচন সামনে রেখে মনোনয়ন ফরম বিক্রির কার্যক্রমের মধ্যেই ঢাকার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বুধবার (১৪ নভেম্বর) দুপুরে পুলিশের সঙ্গে দলটির নেতাকর্মীদের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এসময় পুলিশের দুটি গাড়ি পোড়ানো হয়, ভাংচুর করা হয় অনেক গাড়ি।

পুলিশ দাবি করেছে, বিএনপি নেতা-কর্মীরা বিনা উসকানিতে তাদের উপর হামলা চালালে সংঘর্ষের সূত্রপাত হয়।