বাবলু’র দুর্দান্ত বোলিংয়ে ফতেহপুর ক্রিকেট ক্লাবের জয়

বিয়ানীবাজার ক্রিকেট লীগের সি গ্রুপের ম্যাচে মুহুর্তে বাবলু,জামিল ও সাহেদের দূর্দান্ত বোলিংয়ে ঘুরে ধারাতে পারে নি ফ্রেন্ড স্টাপ। ১৯৩ রানে ১৯.২ বলে গুটিয়ে যায় ফ্রেন্ড স্টাফের ইনিংস। বাবলু ৪ ওভার বল করে ১৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট লাভ করেন।

মঙ্গলবার সকালে ওসমানী স্টেড়িয়াম মাঠে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন ফতেহপুর ক্রিকেট ক্লাবের দলীয় অধিনায়ক আনোয়ার হোসেন বাবলু।

শুরুতে ব্যাট করতে নেমে সুলতান রাজার বলে ক্লিন বোল্ড হয়ে ১ রান করে ফিরে যান রাজেল আহমদ। তবে ওপেনার তুষার লোকাল বয় নাহিদকে নিয়ে বড় রান সংগ্রহের পথে বাধা হয়ে দাড়ান বোলার রোসান৷ তবে সবাই যখন যাওয়া আসার মিছিলে ব্যাস্ত সেখানে শাহেদ ও জাহাঙ্গীরের গুরুত্ব পূর্ন পার্টনারশিপে বড় সংগ্রহের পথে অগ্রসর হয় ফতেহপুর।শেষ মুহুর্তে নিলয়ের ৩০ রানের ঝড়ো ইনিংসে ফ্রেন্ড স্টাফকে ২২৫ রানের লক্ষ্য ছুড়ে দেয় ফতেহপুর ক্রিকেট ক্লাব। ফতেহপুরের হয়ে জাহাঙ্গীর সর্বোচ্চ ৭৭ রান ও শাহেদ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন।  ফ্রেন্ড স্টাফের হয়ে সুলতান ৪ ওভার বল করে ৩০ রান দিয়ে ৪ উইকেট লাভ করেন।

২২৫ রানের জবাবে লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে রোসান ও মিজুর ব্যাটে দিশেহারা হয়ে পড়ে ফতেহপুরের উদ্বোধনী বোলাররা। তবে জামিলের বলে ২৬ বলে ৩০ রান করে ফিরে যান আক্রমনাত্মক খেলা মিজু৷ সুলতান,মিজুদের যাওয়া আসার মিছিলে ক্রমশ ভায়নক হয়ে উঠছিলেন অতিথি ব্যাটসম্যান সায়েম তবে ৪৯ রানে বাবলুর বলে এলবির ফাঁদে পরে অর্ধশত করতে না পারার আক্ষেপ নিয়ে ফিরে যান তিনি। ১৯৩ রানে ১৯.২ বলে গুটিয়ে যায় ফ্রেন্ড স্টাফের ইনিংস। ফ্রেন্ড স্টাপের হয়ে রোসাদ সর্বোচ্ছ ৩০ বলে ৬৪ রান করেন।

ফতেহপুরের হয়ে বাবলু ৪ ওভার বল করে ১৯ রান দিয়ে ৪ উইকেট লাভ করেন।

ম্যান অব দ্যা ম্যাচ সাহেদ ,মোস্ট এক্সাইটিংবাবলু ,ওভার সিক্স রোসাফ ,ম্যাক্সিমাম ফোর ইন ইনিংস জাহাঙ্গীর।