বিয়ানীবাজারে স্কুল ছাত্রী ধর্ষণ : থানায় মামলা

স্টাফ রিপোর্টার ::

সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার কুড়ার বাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা গ্রামে স্কুল ছাত্রী (১৪) কে পাশবিক নির্যাতনের ঘটনার ৩ দিন পর থানায় মামলা হয়েছে। ১৭ আগষ্ট রাতে নির্যাতিতার বড় ভাই আমিন হোসেন বাদি হয়ে আঙ্গুরা গ্রামের আব্দুল খালিকের ছেলে মিনহাজ হোসেনকে (২৩) আসামী করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে এই মামলা দায়ের করেন। নির্যাতিত ওই স্কুল ছাত্রী পঞ্চখন্ড বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী।

মামলার বিষয়ে বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর বিয়ানীবাজারকণ্ঠকে নিশ্চিত করেছেন।

এজাহার সূত্রে জানা যায়,যুবক মিনহাজ হোসেন উপজেলার কুড়ার বাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা গ্রামের মৃত আব্দুল খালিকের ছেলে। গত ১৪ আগষ্ট সকালে ওই স্কুল ছাত্রীতে মিনহাজ তার নিজ ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। দীর্ঘ সময় ওই স্কুল ছাত্রীর ও সন্ধান না পাওয়ায় তার পরিবারের সদস্যরা খুজতে থাকেন। পরে স্কুল ছাত্রীর বড় বোন মিনহাজের ঘর থেকে তাকে বেরিয়ে আসতে দেখে তার কাছে জানতে চান। ওই মিনহাজ তার নিজ ঘর থেকে পালিয়ে যায়। পরে ওই স্কুল ছাত্রী নিয়ে তার পরিবারের সদস্যরা তাকে নিয়ে বিয়ানীবাজার সরকারি হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তারা তাকে সিলেট এম.এ.জি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করেন। পরে ঘটনাটি জানাজানি হলে মানুষের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এরইমধ্যে গ্রামের কয়েকজন বিষয়টি আপোষ মীমাংসার চেষ্টা করেন। খবরটি গণমাধ্যম খবর প্রকাশ হলে তাদের সকল অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়ে যায়।

বিয়ানীবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অবনী শংকর কর বিয়ানীবাজারকণ্ঠকে জানান , ধর্ষণের মামলা নেওয়া হয়েছে। আসামি গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।