গোলাপগঞ্জ থেকে নবজাতক চুরি, সিসিক কাউন্সিলরের সহায়তায় উদ্ধার

বিয়ানীবাজারকণ্ঠ.কম ::

সিলেট নগরীর বাদামবাগিচা এলাকায় গত মঙ্গলবার রাতে এক রহস্যময় নারীর কাছ থেকে এক নবজাতককে উদ্ধার করা হয়। স্থানীয় লোকজন ঐ মহিলাকে নিয়ে ৬নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামিমের কার্যালয়ে গেলে তিনি ঐ মহিলাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন এবং পুলিশকে বিষয়টি অবগত করেন।

জানা যায়, ঐ মহিলা সোমবার থেকে বাদামবাগিচা, মজুমদারি এলাকার কয়েকটি বাসায় গিয়ে নবজাতকটিকে রেখে যাওয়ার চেষ্টা করে। মঙ্গলাবার রাতেও দু’জন মহিলার কাছে শিশুটিকে রেখে যেতে চাইলে এলাকাবাসীর সন্দেহ হয়। তখন এলাকার লোকজন নবজাতকসহ ঐ মহিলাকে কাউন্সিলর কার্যালয়ে নিয়ে আসেন।

এরপর ঐ মহিলাকে শিশুটি সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে এক এক সময় এক এক কথা বলে। সে নিজের পরিচয়ও ঠিকমত দেয়নি। বাচ্চাটিকে কোথায় পেয়েছে জানতে চাইলেও সে ভিন্ন ভিন্ন কথা বলছে। তবে সে বলেছে বাচ্চাটিকে গোলাপগঞ্জের একটি হাসপাতাল থেকে নিয়ে এসেছে।

পরে কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী বিষয়টি বিমানবন্দর থানা পুলিশকে অবগত করেন। সেই সাথে রহস্যময় ঐ মহিলা ও শিশুটিকে তিনি পৃথক বাসায় রাখার ব্যবস্থা করেন। এরপর পুলিশের সহযোগিতায় গোলাপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন স্থানে খোঁজ নিয়ে বাচ্চাটির আসল মায়ের খোঁজ পাওয়া যায়।

পরে বুধবার রাতে বাচ্চাটির মা গোলাপগঞ্জের দত্তরাইল চৌধুরীপাড়া গ্রামের খুশি রাণী মালাকারের কাছে বাচ্চাটিকে হস্তান্তর করা হয়।

কাউন্সিলর ফরহাদ চৌধুরী শামীম জানান, বিভিন্ন যায়গায় খোঁজ করে নবজাতকের পরিবারের সন্ধান পাওয়া যায়। মুলত বাচ্চাটির বাবা নিখোঁজ আছেন। তাই মা বাচ্চাটিকে ঐ মহিলার হাতে তুলে দেয়। তবে এখন তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরেছে এবং বাচ্চাটিকে তাদের কাছে নিয়ে গেছে।

বাচ্চাটির পরিবার খুঁজে পেতে তাকে সহযোগিতা করা সকলের প্রতি তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।